Home খেলা নির্বাচক প্যানেলে পরিবর্তনের আভাস

নির্বাচক প্যানেলে পরিবর্তনের আভাস

437
0
SHARE

বিসিবির বর্তমান নির্বাচক প্যানেলের দুই সদস্য মিনহাজুল আবেদীন নান্নু ও হাবিবুর বাশার সুমনকে আগামীতে নির্বাচক হিসাবে নাও দেখা যেতে পারে। কারণ এই প্যানেলের অধীনে বাংলাদেশ দল যেমন সাফল্য পেয়েছে, তেমনি ব্যর্থতাও আছে। এমনকি সদ্য শেষ হওয়া বিশ্বকাপ দল বা আয়ারল্যান্ড সফরে কিছু খেলোয়াড়ের অন্তর্ভুক্তি নিয়েও কম আলোচনা হয়নি। সর্বশেষ শ্রীলঙ্কা সফরের দল নিয়ে অসন্তুষ্টি আছে টিম ম্যানেজমেন্টের। যেমন হঠাৎ করে শফিউল ইসলামকে দলে নেওয়া হয়েছে। এমতাবস্থায় নির্বাচক প্যানেলে পরিবর্তন আনতে চাচ্ছে বোর্ড। তাই তাদের সঙ্গে চুক্তির মেয়াদ বাড়ানোর সম্ভাবনা ক্ষীণ বলে বিসিবি সূত্রে জানা গেছে। আগামী ২৭ জুলাই বিসিবির পরিচালনা পর্ষদের সভায় এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হবে।

চলমান শ্রীলঙ্কা সফরে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নুর দলের সঙ্গে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু বিসিবি সূত্রে জানা গেছে, মিনহাজুল যদি প্রধান নির্বাচক হিসেবে নাই থাকেন তাহলে তাঁকে শ্রীলঙ্কায় পাঠিয়ে কী হবে! এ কারণে তার টিকেট বাতিল করা হয়েছে।

তবে বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের প্রধান আকরাম খান বলেছেন, টিকিট বাতিলের সঙ্গে প্রধান নির্বাচকের মেয়াদ শেষ হওয়ার কোনো সম্পর্ক নেই। দেশে ‘এ’ দলের খেলা চলছে। বিসিবি চাইছে তিনি এই খেলার দিকে চোখ রাখুন। তবে হ্যাঁ, নির্বাচকদের পারফরমেন্স নিয়ে এই বোর্ড সভায় আলোচনা হবে। তাঁদের মেয়াদ বাড়বে কি বাড়বে না, সেটির সিদ্ধান্ত বোর্ড সভাতেই চূড়ান্ত হবে। তার আগে কিছু বলার উপায় নেই।

অপরদিকে বিসিবির একজন পরিচালক জানান, বোর্ড চাইছে নির্বাচক প্যানেলে একটা পরিবর্তন আনতে। মিনহাজুল নির্বাচক হিসেবে আছেন অর্ধযুগের বেশি সময় হয়ে গেছে। ২০১৬ সালে ফারুক আহমেদ সরে দাঁড়ালে প্রধান নির্বাচক হন মিনহাজুল। হাবিবুলও অর্ধযুগের বেশি সময় নির্বাচক হিসেবে কাজ করছেন।

অবশ্য কাজ চালিয়ে যাওয়ার ব্যাপারে আশাবাদী প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু। তিনি মনে করেন, ‘এ’ দলের পারফরমেন্সে সামগ্রিক অবস্থার প্রতিফলন ঘটৈনি। কারণ একই সময়ে ভারতে বিসিবি একাদশে কয়েকজন ভালো ক্রিকেটার চলে যান। যে কারণে ‘এ’ দলটা পরিপূর্ণ শক্তির ছিল না।

নান্নু বলেন, আমি এই প্যানেলে তিন বছর ধরে আছি। আমি মনে করি যথেষ্ট ভালো করেছি। হাইপারফরমেন্স টিমের সঙ্গে কাজ করেছি, তারাও বেশ ভালো। ‘এ’ দলের সঙ্গেও কাজ করেছি। তারা বেশ কিছু ম্যাচ খেলেছে। জাতীয় দলও অনেক ভালো খেলেছে। যদি গত বছরের পারফরমেন্স দেখেন তবে আমরা ৫২ শতাংশ ম্যাচ জিতেছি। এটা বিরাট অর্জন। আমরা র‌্যাঙ্কিংয়েও উন্নতি করেছি। লঙ্গার ভার্সনেও আমরা ভালো করছি। যদি আমাকে আরেকটি সুযোগ দেওয়া হয়, তাহলে আমি অবশ্যই ভালো কিছু করার চেষ্টা করব।

তিনি আরো বলেন, এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষমতা বোর্ডের। (আমি থাকব কি না) সেটা বোর্ডের সিদ্ধান্ত। এটা তাদের ওপর নির্ভর করছে। যদি আমাকে রাখা হয় তবে অবশ্যই ভালো কিছু করার চেষ্টা করব।